অসম্ভব কে সম্ভব করে দেখালো পাকিস্তান, অবাক ক্রিকেট বিশ্ব

জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ১৮ বলে ৩৪ রান। মোহাম্মদ হুসনাইনের করা ১৭তম ওভারে লিয়াম ডওসন নেন ২৪ রান। তবে পরের ওভারেই দুই বলে দুই উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচ ঘুরিয়ে পেসার হারিস রউফ। আর শেষ ওভারে যখন ৪ রান দরকার তখন রান আউট হব টপলি, আর তাতেই ৩ রানের শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেয়ে সিরিজে ২-২ সমতা আনে পাকিস্তান।

 

 

আগে ব্যাট করা পাকিস্তানের করা ৪ উইকেটে ১৬৬ রানের জবাবে ইংল্যান্ড ১৯.২ ওভারে ১৬৩ রানে অল আউট হয় সফরকারী ইংল্যান্ড।

 

 

করাচিতে সিরিজের ৪র্থ ম্যাচে এই ম্যাচে টস জিতে পাকিস্তানকে ব্যাট করতে পাঠায় ইংল্যান্ড। ব্যাট করতে নেমে দারুণ সূচনা করেছিলেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার বাবর আজম এবং মোহাম্মদ রিজওয়ান।

 

 

৯৭ রানের জুটি গড়ে বিচ্ছিন্ন হন তারা। ৩৬ রান করে এ সময় আউট হন বাবর আজম। রিজওয়ান দুর্দান্ত এক হাফ সেঞ্চুরি করে ৮৮ রানে গিয়ে আউট হন। ৬৭ বলে সাজানো ইনিংসটি ছিল ৯টি বাউন্ডারি আর ১টি ছক্কায় সাজানো।

 

 

শান মাসুদ করেন ২১ রান। আসিফ আলি ১৩ রানে অপরাজিত থাকেন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের হয়ে রিস টপলি নেন ২ উইকেট। ১টি করে উইকেট নেন লিয়া ডসন এবং ডেভিড উইলি।

 

 

জবাবে ১৬৩ রানে থামে ইংলিশরা। ইংল্যান্ডের পক্ষে লিয়াম ডওসন ১৭ বলে ৩৪ রান, এছাড়া হ্যারি ব্রুক ৩৪ ও ডাকেট ৩৩ রান করেন।

পাকিস্তানের পক্ষে হারিস রউফ ও মোহাম্মদ নাওয়াজ ৩টি করে উইকেট নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *