ট্রেনে ঘুমনোর অনেক নিয়ম ভারতে, ভ্রমণে গেলে মানতে হবে

ট্রেন মানেই তো লম্বা জার্নি। আর লম্বা জার্নি মানেই সুযোগ বুঝে ঘুম! ভারতীয় রেলের পক্ষ থেকে এবার ঘুমের নিয়মকানুন বেঁধে দেওয়া হয়েছে। আর তা মানলে বিপাকে পড়তে হতে পারে পর্যটকদের।

 

 

নিয়মানুযায়ী দিনের বেলায় ট্রেনে ঘুমের সুযোগই নেই। তাই বলে কি দুপুরে ঘুমনো যায় না! যেতেই পারে কিন্তু সেক্ষেত্রে কোনো বগির একটি কুপের সবাইকেই শুয়ে পড়তে হবে!

 

 

ভারতীয় রেল জানিয়েছে, রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত স্লিপার ক্লাসের কোনো বার্থ ঘুমানোর জন্য ব্যবহার করা যায়। এসি থ্রি টিয়ার বগির ক্ষেত্রেও একই নিয়ম। যাত্রীদের জেনে রাখা দরকার রাত ১০টার পরে টিকিট পরীক্ষকও বিরক্ত করতে পারেন না।

 

 

টিটিই (ট্রাভেল টিকিট এগজামিনার)-দের ওপর নির্দেশ থাকে যাতে টিকিট পরীক্ষার কাজ তারা রাত ১০টার মধ্যে মিটিয়ে ফেলেন। তবে রাত ১০টার পরে যে ট্রেন ছাড়ছে বা যাত্রীরা ট্রেনে উঠছেন তাদের ক্ষেত্রে টিকিট পরীক্ষার এই সময়সীমা কার্যকর নয়।

 

 

দূরপাল্লার ট্রেনে সফর করার সময়ে সবচেয়ে সমস্যা হয় মিডল বার্থের যাত্রীদের। লোয়ার বার্থের যাত্রী ঘুম থেকে উঠে পড়লে তাদেরও নেমে পড়তে হয়। আবার সারাদিনে লোয়ার বার্থের যাত্রীরা বিছানা না পাতলে মিডল বার্থে বিছানা পাতাই সম্ভব নয়। সেই দিক থেকে অবশ্য আপার বার্থের যাত্রীদের কোনো চিন্তা থাকে না।

 

 

ভারতীয় রেলে রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত সাইড আপার বার্থের যাত্রী লোয়ার বার্থে বসার দাবি করতে পারেন না। সাইড আপার ও লোয়ার বার্থে আরএসি-তে যাদের টিকিট থাকে তাদের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম। সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সাইড আপার বার্থের যাত্রীরা চাইলে লোয়ার বার্থে বসতে দিতেই হবে।

রেলের ঘুমনোর এই নিয়মে অবশ্য কোথাও জরিমানার কথা বলা নেই। কেউ মানা বা না মানা সবটাই নির্ভর করছে সহযাত্রীদের সঙ্গে বোঝাপড়ার উপরে।

About admin

Check Also

নাচের ভিডিও ভাইরাল, তিন পুলিশ কনস্টেবল সাময়িক বরখাস্ত (ভিডিও)

নাচের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর ভারতের তিন পুলিশ কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *