বিবাহিত জীবনের ২১ বছর, সংসার নিয়ে কেমন আছেন মাধুরী?

তারকাদের বিয়ে হলেই অনেকে খোঁচা দেন বিচ্ছেদ হবে কবে? রসিকতা করে করা হলেও এটা একটা বেদনা জাগানিয়া প্রশ্ন। তারকাদের সম্পর্ক হওয়া ও ভাঙা নিয়ে যুগের পর যুগ সাধারণ মানুষের অভিজ্ঞতাগুলো বেশ তিক্ত। সে জায়গায় কেউ কেউ ব্যতিক্রম হয়ে একজন সঙ্গীর হাত ধরে জীবনটা পর করে দেন ভালোবাসার পূর্ণতাই।

 

 

তেমনি এক তারকা মাধুরী দীক্ষিত। শোবিজে চারদিকে এত ভাঙা-গড়ার সমাহারে বলিউডের ‘ধক ধক গার্ল’ বিবাহিত জীবনের ২১ বছরে পা রেখেছেন আজ। ১৯৯৯ সালের ১৭ অক্টোবর তিনি জীবন সঙ্গী হিসেবে বিয়ের মালা দিয়েছিলেন চিকিৎসক শ্রীরাম নেনের গলায়।

 

 

সেই থেকে আজ অবধি কখনোই শোনা যায়নি এই দম্পতির সংসার ভাঙনের খবর। যেভাবে পর্দায় নিজেকে সফল অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তেমনি সুনিপুণভাবে ধরে রেখেছেন সংসারও। তিনি তার সংসারের প্রাণভ্রোমরা। স্বামী নেনে এই স্বীকৃতি প্রকাশ্যে বহুবার দিয়েছেন মাধুরীকে।

 

 

বিবাহবার্ষিকীতে প্রতি বছরই দুই ছেলে আরিন আর রায়ানকে নিয়ে ঘুরতে বের হন মাধুরী ও নেনে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। দুটি ডুয়েট ছবি পোস্ট করে আজ ১৭ অক্টোবর ফেসবুকে স্বামীকে বিশেষ দিনটির জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাধুরী। সেখানে একটি ছবি বিয়ের পরপর তোলা। আরেকটি ছবিতে তাদের দেখেই বোঝা যাচ্ছে কোথাও ভ্রমণে রয়েছেন তারা।

 

 

সেই দুই ছবির ক্যাপশনে মাধুরী লিখেছেন, ‘আজ আমার স্বপ্নের মানুষটির সঙ্গে অ্যাডভেঞ্চারে পূর্ণ জীবন শুরু করার আরও একটি বছর শুরু হলো। আমাদের মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে, আজও তা বহমান। কিন্তু আমার জীবনে তোমাকে পেয়ে আমি কৃতজ্ঞ। তোমাকে এবং আমাদের রামকে শুভ বার্ষিকী, চিকিৎসক শ্রীরাম নেনে।’

 

 

১৯৯৯ সালের ১৭ অক্টোবর হাজারো পুরুষের হৃদয় ভেঙে যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী সার্জন শ্রীরাম নেনেকে বিয়ে করেন মাধুরী দীক্ষিত। বর্তমানে তারা ভা’রতের ‘হাই প্রোফাইল’ দম্পতি। তাদের দুই ছেলে রায়ান ও আরিন।

বিয়ের পর শাহরুখ খানের বিপরীতে ‘দেবদাস’ ছবিতে অভিনয়ের পর ২০০৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান মাধুরী। সেখানেই বসবাস করছিলেন সপরিবারে। আবার ফিরে আসেন ২০১১ সালে। শুরু করেন অভিনয়টাও।

সম্প্রতি তিনি নেটফ্লিক্সের জন্য নির্মাণ হতে যাওয়া একটি সিরিজে কাজ করতে চলেছেন, করণ জোহরের প্রযোজনায়।

About admin

Check Also

অভিনেত্রী শ্রাবন্তীর মা মা’রা গেছেন

দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ থাকা অভিনেত্রী শ্রাবন্তীর মা মাহমুদা সুলতানা মা’রা গেছেন। মঙ্গলবার রাত পৌনে ১টার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *